২৫শে জুলাই, ২০২১ ইং সকাল ১১:০০
ব্রেকিং নিউজ
ভোলা পৌরসভার মেয়র মনিরুজ্জামানের বাবা আসাদুজ্জামানের জানাজায় মানুষের ঢল রসুলপুরের মানবিক চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম পন্ডিত’র ঈদের শুভেচ্ছা শশীভূষণ থানা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহবায়ক হাজী সোহেল’র অগ্রিম ঈদ শুভেচ্ছা বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা দেশের আলেম সমাজকে সম্মানিত করেছেন-এমপি শাওন স্বাস্থ্য সুরক্ষায় সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিতে কাজ করছে সরকার-এমপি মুকুল ভোলা ডায়াগনস্টিক সমিতির সভাপতির মাযের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ তজুমদ্দিনের ৩ ইউনিয়নের ৭ হাজার অসহায়দের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর উপহার বিতরণ করেছেন এমপি শাওন দৌলতখানে শিক্ষক সমাজের নব-নির্বাচিত কমিটি এমপি মুকুল’কে ফুলের শুভেচ্ছা বোরহানউদ্দিন ও দৌলতখানে হতদরিদ্রদের মাঝে প্রধান মন্ত্রীর সহায়তা বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন, এমপি মুকুল মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সফল রাষ্ট্র নায়ক,এমপি মুকুল

না.গঞ্জে ৭ খুন : তদন্তকারী কর্মকর্তার জবানবন্দি অব্যাহত

Reporter Name
  • Update Time : Saturday, September 3, 2016,
  • 345 Time View

প্রথম বাংলা : নারায়ণগঞ্জের চাঞ্চল্যকর সাত খুনের দুটি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ মণ্ডলের জবানবন্দি রেকর্ড করেছেন আদালত। আগামী ১ সেপ্টেম্বর পরবর্তী সাক্ষ্য শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।নারায়ণগঞ্জের সন্ত্রাসীদের গডফাদার গ্রেফতার নূর হোসেন ও তারেক সাঈদ মুহাম্মদসহ ২৩ আসামির উপস্থিতিতে সোমবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেনের আদালতে ওই জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়।সাত খুনের ঘটনায় তৃতীয় তদন্তকারী কর্মকর্তা হিসেবে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক মামুনুর রশিদ মণ্ডল। চার্জশিট দাখিলের সময় তিনি জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পরিদর্শক ছিলেন।নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাড. ওয়াজেদ আলী খোকন জানান, ঘটনার পর মামলার তদন্তভার পেয়ে খীভাবে তদন্ত করেছে, কাকে কাকে গ্রেফতার ও আটক করা হয়েছে, জিজ্ঞাসাবাদ, স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিসহ তদন্তের আদ্যোপান্ত জবানবন্দিতে আদালতে জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা। এ কারণে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার সাক্ষ্য জবানবন্দি অনেক দীর্ঘ। এর আগে ২২ আগস্ট জবানবন্দি শুরু হয়। সোমবারও সাক্ষ্য জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়েছে। আগামী ১ সেপ্টেম্বর পরবর্তী সাক্ষ্য শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।জানা গেছে, সাত খুনের ঘটনায় দুটি মামলা হয়। একটি মামলার বাদী নিহত আইনজীবী চন্দন সরকারের মেয়ে জামাতা বিজয় কুমার পাল ও অপর বাদী নিহত নজরুল ইসলামের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বিউটি। দুটি মামলাতেই অভিন্ন সাক্ষী ১২৭ জন করে। এখন পর্যন্ত সাত খুনের দুটি মামলায় অভিন্ন ১২৭ সাক্ষীর মধ্যে ১০৬ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
AshrafTech