১লা জুলাই, ২০২২ ইং সকাল ১০:৩৯
ব্রেকিং নিউজ
পদ্মা সেতু দেখতে গিয়ে ট্রলার ডুবিতে নিহত চরফ্যাশনের তামিমের দাফন সম্পন্ন ভোলায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে  আওয়ামীলীগের  প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড পাওয়ায় সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে ভোলা প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মাটি ও মানুষের দল-ভোলায় এমপি শাওন দৌলতখানে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত এমপি শাওনের নেতৃত্বে ৫টি লঞ্চে ১০ হাজার মানুষ যাবে পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভোলা প্রেসক্লাব সভাপতি হাবিবুর রহমানকে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা ভোলায় সুশীলনের উদ্যোগে কিশোরীদের আত্মবিশ্বাস বাড়াতে কারাতে প্রতিযোগিতা ভোলায় গ্লোবাল টিভির সাংবাদিকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত অসম্ভবকে সম্ভবে পরিনত করাই শেখ হাসিনার সাহসিকতা: এমপি শাওন

দৌলতখানে গনি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলায় ২টি পরিবারের মানবেতর জীবন

Reporter Name
  • Update Time : Thursday, May 19, 2022,
  • 93 Time View

ক্রাইম বিডি ডেক্স।
ভোলার দৌলতখান উপজেলার চরপাতা ইউনিয়নের নলগোড়া ৩নং ওয়ার্ডে মূর্তীমান আতঙ্ক গনি বাহিনীর জুলুম অত্যাচার অন্ধকার যুগকেও হাড়মানিয়েছে। ভূক্তভোগী ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, ওই এলাকার মৃত শফিজল ইসলামের ছেলে রুবেল গংরা ক্রয় ও পৈত্রিক সূত্রে জমির মালিক হয়ে ঘর-দরজা, পুকুর, বাগান বাগীচা সৃজন করে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করে আসছিল। কিছু দিন পূর্ব রুবেল গংদের ভোগ দখলীয় জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পরে স্থানীয় সন্ত্রাসী ও ভুমিদস্যু চক্রের মূল হোতা তছলিমের ছেলে আবদুল গনি গংদের। বিগত দিনে আবদুল গনির পালিত ক্যাডার বাহিনী রুবেল গংদের এলাকা থেকে সমুলে উৎখাত করা জন্য হুমকী ধামকি সহ বিভিন্ন সড়যন্ত্রের জাল বুনতে থাকে। কোন ভাবেই রুবেলদের এলাকা ছাড়া করতে না পেরে তাদের উপর অমানুষিক নির্যাতন ও লুট তরাজ করে এলাকা ছাড়ার পরিকল্পনা করে গনি বাহিনী। সন্ত্রাসী গনি গংদের উল্লেখিত অত্যাচার থেকে রক্ষা পেতে রুবেল গংরা এলাকার গন্যমান্যদের একাধিকবার অবগত করলেও কোন প্রাকার সু-ফল মেলেনি তাদের ভাগ্যে। এক পর্যায়ে উভয়ের বাক বিতন্ডের জের ধরে শুরু হয় দু’পক্ষের মধ্যে চরম শত্রুতা। এটাকে কেন্দ্র করে বে-পরোয়া গনি বাহিনী রুবেল ও তার ভাবী ফাতেমার বাড়িতে হামলা ও লুটতরাজ করার পরিকল্পনা কারে। গত রমজান মাসের এক রাতে গনি, কালিমুল্লাহ, তছলিম, মাকসু, নুরনবী, মনিরসহ ৮/১০জনের একটি সন্ত্রাসী দল দেশীয় অস্ত্র শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে রুবেল ও তার ভাবী ফাতেমার বাড়িতে আনাধিকার ভাবে প্রবেশ করে তাদের ঘরে দরজা ভাংচুর করে ঘরে ঢুকে পরে। এসময় সন্ত্রসীরা ফাতেমার ঘরে থাকা নগদ টাকা, স্বর্নালঙ্কার, ও দামীয় আসবাব পত্র লুট করা শুরু করলে ফাতেমা ও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা বাঁধা প্রদান করে। এতে সন্ত্রাসীরা আরো ক্ষিপ্ত হয়ে ফাতেমা, ছিয়াম ও আছিয়াসহ ৫জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও মারধর করে গুরুতর জখম করে। অন্য দিকে এসময় সন্ত্রাসীরা ফিরে আসার সময় বাড়িতে থাকা চারটি আটো রিক্সা জোড় পূর্বক ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এতেও ক্ষান্ত হয়নি গনি বাহিনী। তার পরের দিন উল্লেখিত গনির নেতৃত্বে তার বাহিনীর সদস্যরা রুবেল, ফাতেমা গংদের ৮টি গরু লুট করে নিয়ে আসে। উল্লেখ্য গনি বাহিনীর এসব অত্যাচার ও লুট করা সব কিছু ফিরে পেতে রুবেল গংরা গনি বাহিনীর বিরুদ্ধে পর-পর ৫টি মামলা করে। একটি মামলায় গনি ও তার দলের লোকেরা কিছু দিন জেল খাটলেও বর্তমানে তারা জামিন পেয়ে পূর্বের ন্যায় অত্যাচার শুরু করেছে। উল্লেখ্য গত ১৫মে মধ্য রাতে রুবেলদের আত্মীয় প্রবাসী শফিউল্লার বাড়িতে হামলা, ডাকাতি ও লুটতরাজ করে গনির বাহিনীর সদস্যরা।
ভূক্তোভোগী শফিউল্লা জানায়, আমার সাথে রুবেল, ফাতেমাদের সাথ ভালো সম্পর্ক আছে বলে গত ১৫ তারিখে মধ্য রাতে গিয়াস উদ্দিন, আকবর হোসেন বাবুলু, আবদুল গনি, তছলিম, জাহাঙ্গীর, বিল্লাল, হাসান, বিল্লাল হোসেনসহ ১৫/১৬জনের একটি সন্ত্রাসী দল ভয়াবহ অস্ত্র নিয়ে আমার ঘরে প্রবেশ করে। এসময় সন্ত্রাসীরা আমাকে, আমার স্ত্রী ও ছোট মেয়েকে একটি ঘরে বন্ধি করে আমার ঘরে থাকা নগদ ২লাখ ১৩ হাজার টাকা, স্বর্ণালঙ্কার ও দামীয় আসবাব পত্র ছিনিয়ে নিয়ে যায়। অন্যদিকে তারা আমার ঘরের দরজা, জানালা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে তছনছ করে দেয়। এ বিষয়ে তদন্ত সাপেক্ষে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামানা করেণ ভূক্তোভূগী রুবেল, ফাতেমা, শফিউল্যাহ ও ওই এলাকার সচেতন মহল।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Dwonload From Ashraftech.Com
AshrafTech